ব্লগ বর্ণনা

সিঙ্গাপুর ম্যাথ (CPA): গণিতের এক আনন্দময় জগৎ



March 03, 2022

 

নুফরাত জেরীন

ছোট্ট একটা দেশের গল্প বলি। ভারী সুন্দর দেখতে। চারদিকে জলের খেলা আর মাঝখানে সেই দেশটি। সেই দেশে একবার কী হলো জানো? দেশের রাজা, মন্ত্রী, পন্ডিত মশাই সবাই খুব চিন্তায় পড়ে গেলেন। যারা বড় হয়ে এই সুন্দর দেশটাকে আরো আরো সুন্দর করবে, তারা গণিতকে যমের মতো ভয় পায়। কোন ভাবেই তাদের এ গণিত ভীতি কাটানো যাচ্ছে না। এরপর কী হলো জানো? রাজ্যের ঝাণু ঝাণু সব পন্ডিতেরা এসে জড়ো হলো আর ভাবতে লাগলো কী করা যায়। ভাবতে ভাবতে তারা দারুণ একটা মেথড আবিষ্কার করে ফেললো। তারা মেথডটির নাম দিলো সিঙ্গাপুর মেথড। এরপর সব পাঠশালায় সেই মেথডে ম্যাথ শেখানো শুরু হলো। সেদিন থেকে ঐ দেশের বাচ্চারা ম্যাথ দেখে আর ভয় পায় না।  এতক্ষণে নিশ্চয়ই বুঝে গিয়েছো কোন দেশের গল্প বলছি? ঠিক ধরেছো, সিঙ্গাপুরের কথাই বলছিলাম।


শুরুর কথা

১৯৮১ সালে সিঙ্গাপুরের কারিকুলাম প্ল্যানিং এন্ড ডেভেলপমেন্ট ডিভিশন (Curriculum Planning and Development Division) নতুন কারিকুলামের পরিকল্পনা শুরু করে। সিঙ্গাপুরের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে দেশটির জাতীয় শিক্ষা কারিকুলামের অংশ হিসেবে ১৯৮২ সাল থেকে কিন্ডারগার্টেন স্কুল গুলোতে এই মেথড চালু করা হয়। এরপর দেশব্যাপী "প্রাইমারি ম্যাথমেটিক্স" নামে এই কারিকুলামের বই বিতরণ করা হয়। ১৯৯২ সালে এই টেক্সট বইকে আরো সমৃদ্ধ করা হয়।

 

দেশে দেশে সিঙ্গাপুর ম্যাথ

Trends in International Mathematics and Science Study (TIMSS) এবং  Programme for International Student Assessment (PISA) এর আন্তর্জাতিক শিক্ষা জরিপে সিঙ্গাপুরের সাফল্য সিঙ্গাপুর মেথডকে সারাবিশ্বের কাছে জনপ্রিয় করে তোলে। ২০১৯ সালের TIMSS জরিপে সিঙ্গাপুর ছিল সবচেয়ে এগিয়ে। বর্তমানে  সিঙ্গাপুরের বাইরে আমেরিকা, কানাডা, ইসরাইল, ফিলিপাইন, বৃটেন প্রভৃতি দেশে সিঙ্গাপুর মেথড বেশ জনপ্রিয়।



সিঙ্গাপুর ম্যাথ (‍Singapore Math)

সিঙ্গাপুর ম্যাথ প্রচলিত গণিত থেকে ভিন্ন কোন বিষয় নয়। ‘সিঙ্গাপুর ম্যাথ’ সারাবিশ্বে সবচেয়ে এডভান্স ম্যাথমেটিক্স মেথড। গণিতের জগতে এই মেথড এনেছে আমূল পরিবর্তন। এই মেথড শিশুদের মনে গণিতের ভয়কে বাসা বাঁধতেই দেয় না। বরং শিশুদের কাছে গণিত হয়ে যায় খেলার মতো। এর ফলে শিশুদের মেধার দ্রুত বিকাশ ঘটে এবং তারা সৃজনশীল মানুষ হিসেবে বেড়ে উঠতে পারে। গবেষণায় দেখা গেছে, সিঙ্গাপুর ম্যাথ কমপ্লিট করা বাচ্চারা অন্য বাচ্চাদের চেয়ে গাণিতিক দক্ষতায় দুই থেকে তিন বছর এগিয়ে থাকে ।

 

সিঙ্গাপুর ম্যাথ যেভাবে কাজ করে

সিঙ্গাপুর ম্যাথ প্রথমত গণিতের শক্ত ভিত গড়ার ওপর জোর দিয়ে থাকে। এটি শিক্ষার্থীদের গণিতের গোড়া থেকে শিখতে সাহায্য করে।

 

সিঙ্গাপুর মেথড মূলত তিন স্টেপের একটি লার্নিং মডেল ব্যবহার করে যা CPA নামে পরিচিত।


CPA ( Concrete> Pictorial> Abstract)

CPA হচ্ছে প্রথমত Concrete তথা বাস্তব জীবনের বিভিন্ন বস্তু দিয়ে গণিতের ধারণা দেওয়া। বস্তুগত উপাদানের সাহায্যে এই ধাপে গাণিতিক সমস্যার সমাধান করা হয়। যেমন: কার্ড, বিল্ডিং ব্লক, চেয়ার, টেবিল  ইত্যাদি।

এরপর Pictorial তথা ছবির মাধ্যমে তার ব্যাখ্যা করা হয়। এই ধাপ মূল কনসেপ্টকে ভিজুয়ালাইজ করতে সাহায্য করে। এখানে শিশুরা ছবি, ডায়াগ্রাম অথবা বিভিন্ন মডেলের সাহায্যে গাণিতিক সমস্যার সমাধান করে থাকে।

সর্বশেষ Abstract হলো সাংকেতিক ধাপ। সংখ্যা এবং বিভিন্ন সংকেত ও চিহ্নের মাধ্যমে এই ধাপে এসে সমস্যার সমাধান করা হয়।

 

কেন শিখবে সিঙ্গাপুর মেথড

সিঙ্গাপুর মেথড তো জানা হলো। এবার চলো জেনে নেই কেন এই মেথড তোমার জন্য জরুরি। এই মেথড ছোট থেকেই তোমার গণিতের মজবুত ভিত তৈরীতে সহায়ক। মূল কনসেপ্ট তুমি ভালোভাবে বুঝতে পারবে এবং আয়ত্ত করতে পারবে। এই মেথড এমনভাবে সাজানো যাতে তুমি খুব সহজে গণিত বুঝতে পারবে। গণিতের প্রাথমিক ভিত্তি শক্ত হওয়ায় ভবিষ্যতে গণিত তোমার জন্য হয়ে যাবে এক্কেবারে সহজ। এই মেথডে অনভ্যস্থ বন্ধুদের থেকে তুমি সবসময় এগিয়ে থাকবে। সিঙ্গাপুর মেথডে বিভিন্ন বার মডেল, গ্রাফ ইত্যাদি তোমার আন্ডারস্ট্যান্ডিং স্কিলকে আরো বাড়িয়ে দিতে সাহায্য করে। আর গণিতের ভয়? একদম উধাও হয়ে গণিত হয়ে যাবে একটা মজার খেলা।



বাংলাদেশে সিঙ্গাপুর ম্যাথ

Abstract লেভেল থেকে গণিত শেখানোর কারণে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা গণিতকে বাস্তব জীবনের সাথে মেলাতে পারে না। গৎবাঁধা কিছু নিয়ম ও সূত্র নির্ভর পড়াশোনার কারণে গণিতের মৌলিক ধারণা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা আর বেড়ে উঠছে গণিতের প্রবল ভীতি নিয়ে। তবে আশার কথা হলো পৃথিবীর অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও সিঙ্গাপুর স্কুলসহ বিভিন্ন বিদেশি স্কুল ও ইংলিশ

মিডিয়াম স্কুলে এই মেথড অনুসরণ করা হয়। বাংলাদেশে শিশুদের জন্য এক বছর মেয়াদী সিঙ্গাপুর ম্যাথের কোর্স রয়েছে তবে এটি অনেক ব্যয়বহুল।



মজারুতে সিঙ্গাপুর ম্যাথ

এতক্ষণ সিঙ্গাপুর ম্যাথের গল্প শুনে তোমারও নিশ্চয়ই মজায় মজায় গণিত শিখতে ইচ্ছে হচ্ছে? তোমার সেই ইচ্ছে পূরণ করতেই ডিজিটাল লার্নিং প্লাটফর্ম মজারুতে আসছে ৯ মাস মেয়াদী সিঙ্গাপুর ম্যাথ কোর্স। চার থেকে ছয় বছর বয়সী শিশুরা এই কোর্স কমপ্লিট করার পর ১০০ পর্যন্ত গণনা করা, দুই অংকের যোগ- বিয়োগ-গুণ-ভাগ সহজেই করতে পারবে। এছাড়াও বিভিন্ন ধরণের জ্যামিতিক শেইপ, মেজারমেন্ট, দৈর্ঘ্য-প্রস্থ, ওজন, মুদ্রার হিসাব করতে পারবে। আর গণিতের ভয় সারা জীবনের জন্য পালিয়ে যাবে।  তাহলে ম্যাথের ভয়কে গুডবাই করে দিতে তুমি প্রস্তুত তো?

 

কোর্সের লিংক- ম্যাথ চ্যাম্পস- কিডস